মানিকছড়িতে গুচ্ছ গ্রামের রেশনে নিন্ম মানের চাল বিতরণ

মানিকছড়ি প্রতিনিধি: গুচ্ছ গ্রামের রেশন বিতরনে প্রকল্প চেয়ারম্যান অসুস্থার কারণে দীর্ঘ দিন অতিবাহিত হওয়ার পর ২৩ এপ্রিল সোমবার সকাল প্রকল্প চেয়ারম্যানে

বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা শীর্ষক সেমিনার লক্ষ্মীছড়িতে
পানছড়িতে যৌথ অভিযানে অস্ত্রসহ ইউপিডিএফ সদস্য আটক
পানছড়ি সনাতন সমাজ কল্যাণ পরিষদের কমিটি গঠন

মানিকছড়ি প্রতিনিধি: গুচ্ছ গ্রামের রেশন বিতরনে প্রকল্প চেয়ারম্যান অসুস্থার কারণে দীর্ঘ দিন অতিবাহিত হওয়ার পর ২৩ এপ্রিল সোমবার সকাল প্রকল্প চেয়ারম্যানে অনুপস্থিতে তাহার নিজস্ব লোক মোঃ নুরু মিয়া’র মাধ্যমে গুচ্ছ গ্রামের রেশনের চাল বিতরণকালে খাওয়ার অনুপযোগী নিম্ন মানের চাল হওয়ার কারণে তিনটহরী গুচ্চগ্রাম বাসী উক্ত চাল নিতে গ্রহণ করতে অনিহা প্রকাশ করেন।

এসময় রেশন নিতে আসা লোকজন প্রতিবাদ করেন। জনপ্রতিনিধি মোশারফ হোসেনসহ স্থানীয় রেশনকার্ডধারীরা প্রতিবাদ করলেও কের কার কথা শুনে। মানিকছড়ি উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ও দায়িত্বপ্রাপ্ত তদারকি অফিসার আব্দুল মান্নান পাটোয়ারী বলেন, আমার নিকট এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। লিখিত অভিযোগ দিলে আমি রেশন বিতরণ বন্ধ করে দিব। মানিকছড়ি খাদ্য নিয়ন্ত্রক জুলিয়াস চাকমা বলেন, আমি প্রকল্প চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম, ও তার নিজস্ব লোক মোঃ নুরু মিয়াকে চাল বুঝিয়ে দিয়েছি যা খাওয়ার উপযোগী। প্রকল্প চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, আমি খুব অসুস্থ্য, অফিসিয়াল কাগজ পত্রে সই স্বাক্ষর করে চাল গুলো বিলি করার জন্য মোঃ নুরুকে দায়িত্ব দেই। কিন্তু গোডাউন ঘর হইতে যা দিয়েছে তা বিলি করা হচ্ছে। নুরু মিয়া বলেন, আমি চাল গুলো চুরি করে আনি নাই গোডাউন ঘর হইতে যা দিয়েছে তা বিলি করা হচ্ছে।

এলাকার জনপ্রতিনিধি মোশারফ হোসেন বলেন, এসব চাল খাওয়ার উপযোগী নয়। আমি বিতরণ বন্ধ রাখার জন্য বলিলেও কোনো কাজ হয়নি। তিনি দাবি করেন, খাদ্যগুদাম হতে আনা চালগুলো পচা ও নিন্ম মানের, যা খাওয়ার উপযোগী নয়।