• May 22, 2024

রাঙ্গুনিয়ায় স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা

শান্তি রঞ্জন চাকমা, রাঙ্গুুনিয়া : রাঙ্গুনিয়া উপজেলা সদর ইছাখালী পৌর এলাকায় গতকাল নিজ বাসায় ফাঁসিতে ঝুলে আশ্রাফ উদ্দিন (১৬) নামের এক স্কুল ছাত্র আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরন করে।

জানা যায়, আশ্রাফ রবিবার রাতে টিভিতে ক্রিকেট খেলা দেখে যথারীতি নিজের কক্ষে ঘুমাতে যায়। সোমবার সকাল ১০ টার পরেও ঘুম থেকে না উঠায় পরিবারের লোকজন অনেক ডাকা ডাকি করে তার সাড়া পায়নি। জানালার ফাঁক দিয়ে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে থানায় সংবাদ দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে দরজা ভেঙ্গে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে রশিতে ঝুলে থাকা লাশ উদ্ধার করে।

রাঙ্গুনিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর মেধাবী ছাত্র এবং উপজেলার ইছাখালী সদরের ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিন আশরাফির ছেলে। সে আগামী বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থী।

 

এলাকাবাসীর মানববন্ধন
বাঙ্গালহালিয়া ইউনিয়নে শফিপুর এলাকার বাসিন্দা ও বাঙ্গালহালিয়া সরকারি কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্রী শামিমা আক্তার (১৭) বিষ পানে আত্মহত্যা করেছে। এই ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে গতকাল সোমবার বাঙ্গালহালিয়া বাজারে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।
জানা যায়, গত ৩ নভেম্বর রাতে শফিপুর গ্রামের নিজ বসত ঘরে সাহেব আলী খলিফার মেয়ে বিষ পান করলে পরিবারের সদস্যরা টের পেলে দ্রুত বাঙ্গালহালিয়া বাজারে স্থানীয় ডাক্তারের নিকট নিয়ে আসলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুর খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিলটি বাঙ্গালহালিয়া উত্তর দক্ষিণ দিক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় বাঙ্গালহালিয়া বাজার চত্বরে যাত্রী ছাউনির সামনে এসে ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও সর্বস্তরের এলাকাবাসী। নিহত শামিমা আক্তার ।
নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, এলাকার প্রবাসী এক যুবকের সাথে কলেজ ছাত্রী শামিমা আক্তার এর বিবাহের জন্য কথা চলছিল। বাঙ্গালহালিয়া ডাকবাংলা পাড়ার বাসিন্দা জনৈক মো. শহিদের ছেলে মোটরসাইকেল চালক রানার সাথে প্রেমের অন্তরঙ্গমুহর্তের কিছু ছবি প্রবাসী সেই যুবকের কাছে পাঠালে বিষয়টি শামিমা আক্তার জানতে পেরে লজ্জা, অপমানে আত্মহত্যা পথ বেছে নেয় শামিমা।
ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম বলেন, শামিমা আক্তার একজন মেধাবী ছাত্রী ছিলেন। তার সম্মানে আঘাত লাগায় আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে এমনটা ধারনা করা হচ্ছে। চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আশরাফুল ইসলাম ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে এবং নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post