রামগড়ে মারমা সম্প্রদায়ের বর্ণাঢ্য মাহা সাংগ্রাইং ম্রাইংমা সাক্র উদযাপন

 রামগড়ে মারমা সম্প্রদায়ের বর্ণাঢ্য মাহা সাংগ্রাইং ম্রাইংমা সাক্র উদযাপন

রতন বৈষ্ণব ত্রিপুরা, রামগড়: মারমা সম্প্রদায়ের মাহা সাংগ্রাইং ম্রাইংমা সাক্র- ১৩৮৫-৮৬ উদযাপনকে ঘিরে রামগড়ে নানা আয়োজনে পালন করেছে সম্প্রদায়টির নানা বয়সী মানুষ । ঐতিহ্যবাহী মাহা সাংগ্রাইং ম্রাইংমা সাক্র উৎসব মারমা সম্প্রদায় নিজেদের জানান দিতে প্রতি বছরেই এইদিনে বর্ণাঢ্য আয়োজন করে থাকে। মারমা সম্প্রদায়ের প্রধান সামাজিক উৎসব মাহা সাংগ্রাইং উদযাপন উপলক্ষে ঐতিহ্যবাহী ম্রাইংমা সাক্র এ রি-আ:কাজা (জলকেলি) উৎসবসহ বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রামগড়ে বর্ণাঢ্য সংগ্রাইং ম্রাইংমা সাক্র উৎসব উপলক্ষে শনিবার (১৩এপ্রিল ২০২৪)বিকালে খাগড়াছড়ির মারমা উন্নয়ন সংসদ কেন্দ্রীয় কমিটির আয়োজনে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে ঐতিহ্যবাহী মাহা সাংগ্রাইং ম্রাইংমা সাক্র উৎসব উপলক্ষে রামগড় বিজয় ভাস্কর্য প্রাঙ্গণ থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়।

এসময় সাদা পায়রা উড়িয়ে মঙ্গল শোভাযাত্রা উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি ও সহধর্মিণী মল্লিকা ত্রিপুরা। তিনি বলেন, আজকে এই সাংগ্রাইং উৎসবকে গিরে আমরা আগামী দিনের পথ চলার এখান থেকে খুঁজে পাব। আমাদের মধ্যে যে গ্লানি, দু:খ বেদনা ভুলে যাওয়ার সুযোগ হচ্ছে এই মুর্হুত। সুখে শান্তিতে স্মৃতিতে যে বসবাস করতে পারি। দেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বে যে ঐক্যবদ্ধ থেকে বাংলাদেশ থেকে সকল নৈরাজ্য সকল জঙ্গিবাদ ও মৌলবাদ সকল অপশক্তিকে আমরা উৎখাত করার মধ্য দিয়ে আমরা যেন শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান সৃষ্টি করতে পেরেছি।

পরে মঙ্গল শোভাযাত্রাটি শুরু করে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদর্ক্ষীণ করে রামগড় মিমি স্টেডিয়ামে এসে শেষ হয়। পরে সাংগ্রাইং উৎসবের প্রধান আকার্ষণ রি-আকাজা (জলকেলি) উৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল রাইসুল ইসলাম এসপিপি,এনডিসি,এএফডব্লিউসি,পিএসসি।

এসময় শোভাযাত্রায় মারমা তরুণ তরুণীরা ঐতিহ্যবাহী নানা বর্ণিল পোশাকে নেচে গেয়ে খেলাধুলায় উৎসবকে মুখরিত করে। এসময় স্বাগত বক্তব্যে রাখেন মারমা উন্নয়ন সংসদের সাংগ্রাই উদযাপন কমিটির আহবায়ক ম্রাগ্য মারমা।

জেলা পরিষদের জনসংযোগ কর্মকর্তা চিংলা মং চৌধুরী ও ডচেংনু চৌধুরী’র সঞ্চালনায় জেলা মারমা উন্নয়ন সংসদের সভাপতি মংপ্রু চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত থেকে বিভিন্ন খেলাধুলা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন – খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, জেলা প্রশাসক সহিদুজ্জামান, জেলা ডিজিএফআইয়ের কমান্ডার কর্ণেল আবদুল্লাহ মো: আরিফ, খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপার মুক্তা ধর, সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজুরী চৌধুরী, জেলা পরিষদের সদস্য হিরেনময় ত্রিপুরা, রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারি,গুইমারা উপজেলা চেয়ারম্যান মেমং মারমা, ইউএনও মমতা আফরিন, ওসি দেবপ্রিয় দাশ, রামগড় পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ রফিকুল আলম, জেলা -উপজেলার মারমা উন্নয়ন সংসদের উপদেষ্টা-সদস্য ও সদস্যা, জেলা- উপজেলার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সাংবাদিক সহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ এতে অংশ নেয়।

পরে মাষ্টার পাড়া স্টেডিয়াম মাঠে আলোচনা সভা, গুণীজন সংবর্ধণা, পুরস্কার বিতরণ ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post