• June 15, 2024

রামগড় বারৈয়ারহাট হেঁয়াকো সড়ক প্রশস্তকরণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

 রামগড় বারৈয়ারহাট হেঁয়াকো সড়ক প্রশস্তকরণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

রতন বৈষ্ণব ত্রিপুরা, রামগড়: ভারত যদি বাংলাদেশে সর্বোচ্চ বিনিয়োগ করে, তাহলে আমাদের অন্য কারও কাছে যেতে হয় না। আমাদের রোড কানেক্টিভিটি ও রেল সেক্টরে দুই দিক থেকেই কানেক্টিভিটি অনেক দূর এগিয়ে গেছে। পাশাপাশি আরও নতুন নতুন দুয়ার উন্মোচিত হচ্ছে। ভারতের সঙ্গে আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্য ও লেনদেন বেড়েছে। এর ফলে উভয় দেশই লাভবান হয়েছে। এই কথাগুলো আমাদের আজকে স্বীকার করতে হবে। আমি ভারতের সঙ্গে বন্ধুত্ব চাই আমাদের নিজেদের স্বার্থে, আমাদের জাতীয় স্বার্থে ও আমাদের উন্নয়নের স্বার্থে।রাজধানীর তেজগাঁওয়ে সড়ক ভবনের চিফ ইঞ্জিনিয়ার কনফারেন্স হলে ‘বারৈয়ারহাট-হেঁয়াকো-রামগড় সড়ক প্রশস্তকরণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন’ অনুষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি এসব কথা বলেন। ২৪ মে বুধবার সকাল ১১টার সময় রামগড় মৈত্রী সেতু ১ সংলগ্ন এলাকায় ভার্চুয়ালি সড়ক প্রস্তকরণ সভার আয়োজন করা হয়।

উক্ত ভার্চুয়ালি সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সড়ক প্রস্তকরণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী জনাব ওবায়দুল কাদের এমপি ও বাংলাদেশ নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার প্রণয় ভার্মা। এসময় ভিত্তিপ্রস্তর অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি ২৯৮নং আসনের সাংসদ ও শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স এর চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, সংরক্ষিত নারী সাংসদ বাসন্তী চাকমা, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, চট্রগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম, খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো. সহিদুজ্জামান, খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপার নাইমুল হক, খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী, রামগড় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী, ফটিকছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তৈয়ব আলী, রামগড় উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব মমতা আফরিন, রামগড় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মানস চন্দ্র দাস,রামগড় পৌরসভার মেয়র রফিকুল আলম কামাল, খাগড়াছড়ি সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদুর রহমান, রামগড় ৪৩ বিজিবি’র সহকারী পরিচালক রাজু আহমেদ, অফিসার ইনচার্জ মো.মিজানুর রহমান সহ সরকারি বেসরকারি দপ্তরে পদস্থ কর্মকর্তা বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ।

সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামের মিরসরাই-ফটিকছড়ি ও খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলায় বাস্তবায়নাধীন বারৈয়ারহাট-হেয়াঁকো-রামগড় সড়ক প্রশস্থকরণ ও আধুনিকীকরণ প্রকল্পটির দৈর্ঘ্য ৩৮ কি.মি। বর্তমান ৫.৫০ মিটারের সড়কটি বৃদ্ধি করে ১১.৩০ মিটারে উন্নতি করা হবে। এতে থাকবে ২৪৯.২০ মিটার দৈর্ঘ্যরে ৯টি ব্রীজ ও ১০৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে ২৩টি সেতু। ২৪টি ব্রীজ ও ২৪টি সেতু ইতিপূর্বে জাইকা কর্তৃক নির্মিত হয়েছে। এ প্রকল্পের ব্যয় ১১০৭.১২ কোটি টাকা যার মধ্যে ইন্ডিয়ান স্টেট ক্রেডিটের আওতায় অর্থাৎ ভারত সরকার ঋণ হিসাবে দিচ্ছে ৫৯৪.০৭ কোটি টাকা। আগামী ৩১ ডিসেম্বর ২০২৪ সালের মধ্যে কাজটি শেষ করার লক্ষমাত্রা দিয়ে ভারতীয় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান অশোকা বিল্ডকন লিমিটেডকে সড়কটি নির্মাণের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য- ২০১৭ সালের ৫ এপ্রিল স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণের জন্য চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর ও রামগড় স্থলবন্দরের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের লক্ষে এ প্রকল্পটি হাতে নেওয়া হয়।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post