• May 24, 2024

রামগড় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভবনের নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ

রামগড় প্রতিনিধি : শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীনে রামগড় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পাকা ভবন সম্প্রসারণ কাজের দ্বিতল ভবন ছাদ ঢালাই নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন খোদ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ফয়েজ আহম্মদ।

এদিকে অভিযোগেরর ভিত্তিতে রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী তাৎক্ষণিক কাজের মান নিয়ে পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনে নিম্ন মানের কংক্রিট ব্যবহার করে ছাদ ঢালাই প্রমাণিত হওয়ায় শুক্রবার নির্মাণকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান “মেসার্স ছামিয়া এন্টারপ্রাইজ” এর লোকেরা ভবনের ছাদ ঢালাই কাজ বন্ধ রাখা বাধ্য হয়।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে প্রথমে উপজেলা চেয়ারম্যান পরিদর্শনকারী মানবিক কারনে নিম্মমানের কংক্রিট বাদদিয়ে নতুন করে ভালমানের কংক্রিট ব্যবহার করার সুযোগ দিলেও ঠিকাদারের লোকজন তা অমান্য করে নিম্মমানের কংক্রিট দিয়ে পরের দিন কাজ শুরু করেদেন। পরবর্তীত্বে উপজেলা চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী ও স্কুল কর্তৃপক্ষ এবং অভিভাবকগন ২৭ ডিসেম্বর রোজ শুক্রবার এ কাজ বন্ধ করেদেন।

অভিযোগকারীদের দাবি, ভবনের কাজ দরপত্র অনুযায়ী করা হচ্ছে না, যা করা হচ্ছে সেখানে তা স্বেচ্ছাচারিতার বর্হি:প্রকাশ। ছাদে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে। মানুষ গড়ার মূল ভিত্তি বিদ্যালয়ই যদি এভাবে অনৈতিকতার মাঝে দিয়ে ছায়া সৃষ্টিকারী শীতল ছাদে পূর্নতা পায় তাহলে সেখানে থেকে কিভাবে দেশ ও জাতি পাবে যোগ্য মানুষ। প্রশ্ন এলাকাবাসি সবার।

অপরদিকে এ কাজের সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাব কন্টাক্টর সোহাগ ও সহকারী প্রকৌশলী বীজক চাকমা অনিয়মের কথা স্বীকার করেন এবং ভালো মানের নতুন কংক্রিট না আসা পর্যন্ত ঢালাই কাজ বন্ধ রাখেন।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post