• May 18, 2024

লক্ষ্মীছড়িতে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রচারণায় হামলা, গুলি বর্ষণ, আহত ৩

 লক্ষ্মীছড়িতে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রচারণায় হামলা, গুলি বর্ষণ, আহত ৩

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার বর্মাছড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী প্রচারণার গাড়ি বহরে হামলা ও গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দেবব্রত তালুকদারসহ অন্তত ৩জন নেতা-কর্মী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতের সংখ্যা আরো বেশি বলে সূত্রে জানা গেছে। এসময় ২/৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়া হয় বলে জানা গেছে। গুুলতি( মার্বেল বুলেট) ছোড়ার কারণেই আঘাত প্রাপ্ত হয় ।

২জানুয়ারী মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে বর্মাছড়ি ইউনিয়নের প্রত্যন্ত দুর্গম মুখপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সন্ত্রাসীদের গুলির শব্দে ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায় নেতা-কর্মীরা। প্রতিদিনের মত নির্বাচনী প্রচারণার অংশ হিসেবে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কুজেন্দ্রলাল ত্রিপুরার সমর্থনে মঙ্গলবার সকালে আনুমানিক ২০/২৫টি মোটরসাইকেল যোগে আওয়ামীলীগ,যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা সদর থেকে ২৫ কি: মি: দুরে গণসংযোগে যায় বর্মাছড়ি এলাকায়। বর্মাছড়ি বাজার প্রবেশ মুখেই লাঠি-শোটা নিয়ে সন্ত্রাসীরা গতিরোধ করে এবং ২/৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে আতংক সৃষ্টি করে। এ ঘটনার জন্য ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ) কে দায়ি করেছে আওয়ামীলীগ। তবে এ বিষয়ে ইউপিডিএফ’র পক্ষ হতে তাৎক্ষনিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায় নি।

এসময় কিছু নেতাকর্মী খিরাম সেনা আর্মি ক্যাম্পে আশ্রয় নেয় এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: বিল্লাল হোসেন বেপারীসহ ১১জন নেতা-কর্মীকে অপহরণের পর সবাইকেই মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয় বলে জানা যায়।

লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রেম্রাচাই চৌধুরী বলেন, নির্বাচনী প্রচারণায় আমাদেও দলীয় নেতা-কর্মীরা বর্মাছড়ি এলাকায় যায়। আমাদের গাড়ির বহর সন্ত্রাসীদের বাঁধার মুখে পড়েছে। আমি খবরটি জানার সাথে সাথেই সেনাবাহিনীকে জানালে দ্রæত ঘটনাস্থলে গিয়ে নেতাকর্মীদের উদ্ধার করে বর্মাছড়ি আর্মি ক্যাম্পে নিরাপদে নিয়ে আসেন। বাকী নেতাকর্মীরা নাজিরহাট নানুপুর হয়ে বিভিন্ন বিকল্প সড়ক দিয়ে লক্ষ্মীছড়িতে ফিরতেছে বলে মুঠোফোন খবর পেয়েছি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সকল নেতাকর্মীরা দলীয় অফিসে ফেরার পর আহত বা হতাহতের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যাবে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান বাবুল চৌধুরী জানান। এ ঘটনাকে ঘিরে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোনো পরিস্থিডু মোকাবেলায় এলাকায় সেনাবাহিনী, পুলিশ ও বিজিব টহল জোড়দার করা হয়েছে।

লক্ষ্মীছড়ি থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো. জাকির হোসেন বলেন, গাড়ির বহরে গুলি করার ঘটনা লোকমুখে শুনেছি। তবে কেউ কোনো অভিযোগ নিয়ে আসেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post