• May 24, 2024

লক্ষ্মীছড়ির ২টি ভোট কেন্দ্রে প্রিসাইডিং অফিসার ও নির্বাচনী সরঞ্জাম গেলো হেলিকপ্টারে

 লক্ষ্মীছড়ির ২টি ভোট কেন্দ্রে প্রিসাইডিং অফিসার ও নির্বাচনী সরঞ্জাম গেলো হেলিকপ্টারে

স্টাফ রিপোর্টার: আর মাত্র একদিন পরেই ৭জানুয়ারি রোববার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণের দিন। খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় ২টি ভোট কেন্দ্রে হেলিকপ্টারে পাঠানো হলো নির্বাচনী সরঞ্জাম। ৫ জানুয়ারি শুক্রবার সকালে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা সদর হ্যালিপ্যাড থেকে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারে করে ভোটের নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানো হয়। একই সাথে সংশ্লিষ্ট প্রিসাইডিং অফিসারসহ অন্যান্য দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মচারি, ব্যালট পেপারসহ যাবতীয় কাগজপত্র এবং পুলিশ, আনসার-ভিডিপি পাঠানো হয়। কেন্দ্র্র ২টি হলো লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার বর্মাছড়ি ইউনিয়নের ফুত্যাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটার সংখ্যা ১হাজার ৭৫জন। লক্ষ্মীছড়ি সদর ইউনিয়নের শুকনাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটার সংখ্যা ১হাজার ৪৬জন। বৈরী আবহাওয়ার কারণে কিছুটা বিলম্ব হয় হেলিকপ্টার অবতরণ করতে। অবশেষে অনুকুল আবওয়ার পরিবেশ তৈরী হলে দুপুর ১২টা থেকে অবতরণ এবং উড্ডয়ন শুরু করে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার, লক্ষ্মীছড়ি ও সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা সুলতানা রাজিয়া জানান, ভোট গ্রহণের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার ২টি কেন্দ্রে নির্বাচনী সরঞ্জাম বিশেষ ব্যবস্থায় হেলিকপ্টারে পাঠানো হয়েছে। কেন্দ্রগুলো হলো লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার বর্মাছড়ি ইউনিয়নের ফুত্যাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও লক্ষ্মীছড়ি ইউনিয়নের শুকনাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ২১হাজার ১৮৫জন। এর মধ্যে পুরুষ ১০ হাজার ৬৭৭জন, মহিলা ১০হাজার ৫০৮জন। লক্ষ্মীছড়ির অধিকাংশ কেন্দ্রই দুর্গম ও প্রত্যন্ত এলাকায় অবস্থিত। সদর কেন্দ্রিক কিছু ভোট কেন্দ্র জীপগাড়ি ব্যবহার করতে পারলেও অনেকে কেন্দ্রে যেতে হবে পায়ে হেঁেট।

এছাড়াও দূরবর্তী ও ঝুকিপূর্ণ ৫টি কেন্দ্রে ব্যালট পাঠানো হবে ভোট গ্রহণের আগের দিন। বাকি ৭টি কেন্দ্রে ব্যালট পেপার পাঠানো হবে ভোটের দিন সকালে। ২প্লাটুন বিজিবি, পুলিশের ৩ টি টহল টীম। এছাড়াও একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ মোতায়েন রয়েছে সেনাবাহিনী। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রেই পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। জানা যায়, প্রতিকেন্দ্রে ৫জন পুলিশ, আনসার-ভিডিপি ৮জন, মহিলা ভিডিপি ৪জন ও প্রিসাইডিং অফিসার মিলে প্রায় ২৪জন ভোট গ্রহণের দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবেন। অবাধ ও সুষ্ঠু ভোট গ্রহণের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানান সুলতানা রাজিয়া।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post