• July 23, 2024

লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান’র অনুপস্থিতে চরম ভোগান্তি, লিখিত অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার:  খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমা একাধীক খুনের মামলা ও অস্ত্র মামলার আসামী হয়ে গ্রেফতার এড়াতে পালিয়ে আছেন দীর্ঘ ৩মাস ধরে। উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে প্রশাসনিক কর্মকান্ড কার্যত অচল হয়ে পড়েছে। থেমে আছে উন্নয়ন কর্মকান্ড। শত শত ফাইল পেন্ডিং পড়ে আছে। ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। মূলত প্যানেল চেয়ারম্যান দায়িত্ব না পাওয়ার কারণেই নানা সমস্যা চরমাকার ধারণ করেছে। সকল সরকারি দপ্তরে নেমে এসেছে স্থবিরতা।

এমতাবস্থায় সৃষ্ট জটিলতা নিরসনে এলাকাবসীর পক্ষ হতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসকের বরাবরে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। ২৭ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হাতে দেয়া এই লিখিত অভিযোগে বলা হয় দীর্ঘ দিন ধরে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমা এলাকায় না থাকায় অফিসিয়াল কাজ কর্ম থেমে আছে। প্রতিনিয়িত তাঁর দপ্তরে ঠিকাদারী ফাইলসহ বিভিন্ন ফাইল টেবিলে গেলেও স্বাক্ষর না হওয়ায় ফাইল ফেরত আসছে না। অনেক উন্নয়ন কাজ থমকে আছে। নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এলাকার মানুষ। এতে করে চলমান কার্যক্রম স্থবির হয়ে আছে। অভিযোগে আরো বলা হয়, চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমার বিরুুদ্ধে বিভিন্ন এলাকায় হত্যাকান্ডের ঘটনায় মামলা রয়েছে। অস্ত্র মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেল খেটেছেন। সেই মামলাটিও চলমান। স্থানীয় অভ্যান্তরীন ইউপিডিএিফ-জেএসএস কিংবা সংস্কার দলের মধ্যেকার অর্ন্তকোন্দলের কারণেও এলাকাবাসীর ভাষ্যমতে জীবননাশের হুমকীর মুখে আছেন উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমা। যে কারণে তিনি মামলা হওয়ার পর পরই আত্মগোপনে আছেন। এমতাবস্থায় বিহীত ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হলে লক্ষ্মীছড়িবাসী চরম দুুর্ভোগের মধ্যে পড়বে।

এদিকে গত ২০ সেপ্টেম্বর উন্নয়ন সমন্বয় সভা হওয়ার কথা থাকলেও রহস্যজনক কারণে তা স্থগিত করা হয়। অভিযোগ ওঠেছে আত্মগোপনে থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমা সরকারের উচ্চমহলে বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিয়ে প্রভাবিত করার চেস্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ফলে নিয়মতান্ত্রিকভাবে বিগত আরো ২টি সভা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পরিচালনা করলেও ৩য় সভা স্থগিত করা হয়। উপজেলা চেয়ারম্যান এলাকায় না থাকতে পেরে সভা করতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদ ইকবাল বলেন, এলাকাবাসীর পক্ষ হতে একটা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। সমন্বয় সভা কখন হচ্ছে এ বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করে কিছুই বলতে পারেন নি। সরকারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ সারা দেশে উন্নয়ন মেলা আয়োজন করা। উপজেলা চেয়ারম্যান’র অনুপস্থিতিতে কিংবা প্যানেল চেয়ারম্যান দায়িত্ব না পাওয়ায় কতটুকু বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে তা নিয়ে শংকা থেকেই গেলো।

পাহাড়ের আলো

https://pahareralo.com

সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে চোখ রাখুন পাহাড়ের আলোতে।

Related post