শেষ হয়নি লঙ্গদু-মাইনী রাস্তা পাকা করনের কাজ

মোঃ আব্দুর রহিম(লঙ্গদু )রাঙ্গামাটি: গত বর্ষায় কাদামাটি আর শুষ্ক মওসুমে ধুলাবালি।একদিকে ধুলাবালিতে সয়লাব আরেক দিকে বর্ষার আগমন।তার পরও শেষ হয়নি লঙ্গদু

মহালছড়িতে ‘বিজু কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট’ পুরস্কার বিতরণ
খাগড়াছড়িতে ৩ সংগঠনের ডাকা অবরোধ পালিত
লামায় ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদে যাওয়ার নির্দেশ

মোঃ আব্দুর রহিম(লঙ্গদু )রাঙ্গামাটি: গত বর্ষায় কাদামাটি আর শুষ্ক মওসুমে ধুলাবালি।একদিকে ধুলাবালিতে সয়লাব আরেক দিকে বর্ষার আগমন।তার পরও শেষ হয়নি লঙ্গদু উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ  যোগাযোগের একমাত্র সড়ক লঙ্গদু –মাইনীমুখ সড়ক পাকা করনের কাজ। কি চরম দুর্ভোগে পড়েছে এ উপজেলার মানুষ,তা নিজ নয়নে না দেখলে কাউকে বুজানো যাবে না।

আর,আই,ডি,পি সি এইচ টি-২ প্রকল্পের আওতায় ১৪/০২/২০১৭ সালে লঙ্গদু –মাইনীমুখ সড়ক বিসি/এইচবিবি করণ এর কাজটি শুরু হয়। কাজটি শেষ হওয়ার কথা ১৪/০২/২০১৮। কাজটি শেষ করার নির্ধারিত সময় ইতিমধ্যে পেরিয়ে গেলেও কাজ শেষ হয়েছে মাত্র ৬০ শতাংস।বাকী কাজ ক্ষন শেষ হবে তা নিয়ে জনমনে দেখা দিয়েছে নানা প্রস্ন।জনগনের জিজ্ঞাসা এক বর্ষা পেরিয়ে গেল কাজ শেষ হয়নি এবারের বর্ষায়ও কি কাদা মাটিতে হাটতে হবে নাকি?এ তো হাটার কথা,যারা মোটর সাইকেল,মাহেন্দ্র,বা ট্রলি চালায় তাদের কষ্টের তো সীমা নেই।

রাস্তায় যে কঙ্কর বা খোয়া দেয়া হয়েছে তাতে প্রতিদিনই কোন না কোন গাড়ির চাকা পাংচার হয়ে দুর্ভোগ বাড়িয়ে চলছে।ধুলাবালিতে প্রতিদিন চলাচলকারী লোকজন সর্দি,কাশি,হাচি,চোখলাল হওয়া ছাড়াও নানা রকম রোগ ও সমস্যার মুখোমুখী হচ্ছে। রাস্তা পাকা করনের কাজে সম্পৃক্ত একজন ঠিকাদারের সাথে কথা হলে তিনি জানান,কাজের সময় বর্ধিত করা হয়েছে। বর্ষার আগেই কাজ শেষ হয়ে যাবে। তিনি আরো বলেন,পিচের জন্য মালামাল ইতিমধ্যে কিছু চলে এসেছে, অফিস থেকে যাচাই বাচাই করে ছাড়পত্র দিলে আমরা কাজ শেষ করতে পারব। যদি তাই হয়, তাহলে বাস্তবায়নকারী করতিপক্ষ লঙ্গদুবাসীর দুর্ভোগ লাঘবে  ব্যবস্থা নিলে রাস্তার দুরসহ যন্ত্রণা থেকে মুক্তি মিলবে।