Homeস্লাইড নিউজশিরোনাম

সশস্ত্র বাহিনী দিবসে এতিমদের জন্য সেনাবাহিনীর মাহফিল, নৈশ ভোজ

স্টাফ রিপোর্টার: ২১ নভেম্বর সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে আইন-শৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত ১৪ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারী সিন্দুকছড়ি সেনা জোনের আওতাধীন বিভিন্ন এল

ইউপি চেয়ারম্যানের উপর হামলার প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে মিছিল
লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘের উদ্যোগে খাগড়াছড়িতে অপরাধকে লাল কার্ড
অস্ত্রধারীদের নির্মূলে যা করা দরকার তাই করা হবে-খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার

স্টাফ রিপোর্টার: ২১ নভেম্বর সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে আইন-শৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত ১৪ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারী সিন্দুকছড়ি সেনা জোনের আওতাধীন বিভিন্ন এলাকায় বিশেষ মোনাজাত ও দোয়া-মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়াও এতিমখানায় শিশুদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করা হয়। দিবসটি উপলক্ষে বুধবার রাতে মানিকছড়ি উপজেলার ২টি এতিমখানায় এতিম শিশুদের সাথে নিয়ে রাতের খাবারে অংশগ্রহন করেন সিন্দুকছড়ি জোন উপ-অধিনায়ক মেজর তৌহিদ সালাউদ্দিন।

এতে প্রায় ৩শতাধিক এতিম ছাত্ররা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও গুইমারা উপজেলার হাফছড়ি ইউনিয়নের একমাত্র এতিমখানায় প্রায় ২শ এতিম ছাত্রদের নিয়ে বিশেষ মোনাজাত শেষে নৈশ্য ভোজের আয়োজন করা হয়। গুইমারা সাবজোন কমান্ডার ক্যাপ্টেন সামিউল ইসলাম সৌখিন উপস্থিত ছাত্রদের সাথে নিয়ে রাত ৯টায় খাবারে অংশগ্রহণ করেন। এসময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষক ও সামরিক কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সশস্ত্র বাহিনী দিবসের গুরুত্ব সম্পর্কে ছাত্রদের উদ্দেশ্যে বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী সম্মিলিতভাবে মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্থানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে আক্রমণের সূচনা করে। অতঃপর ১৬ ডিসেম্বর, মিত্রবাহিনীর কাছে পাকিস্থানী হানাদার বাহিনীর প্রায় তিরানব্বই হাজার সেনা সদস্যের আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়েই বিশ্ব মানচিত্রে স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে।