চট্টগ্রাম সংবাদস্লাইড নিউজ

সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারীর ১১২তম ওরশ শরীফ কাল শুরু

 ফটিকছড়ি প্রতিনিধি: মাইজভান্ডারী দরবার শরীফের আধ্যাতিœক সরাপতের প্রতিষ্টাতা গাউছুল আজম হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারী (ক.) ১১২তম বার্ষিক ওরশ শরীফ ১০ মাঘ, ২৩ জানুয়ারী। আজ রবিবার থেকে ওরশ শরীফ উপলক্ষে ৩ দিনের বিশেষ কর্মসূচী শুরু হবে। সোমবার সকালে কোরআন খতম, মাজারে গোসল শরীফ ও রওজা শরীফে গিলাফ চড়ানোর মাধ্যমে ওরশ শরীফের মূল আনুষ্টানিকতার শুরু হবে। এ উপলক্ষে মাইজভান্ডার দরবার শরীফের গাউছিয়া আহমদিয়া মঞ্জিলের সাজ্জাদানশীনগণ, উপজেলা প্রসাশন, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও এলাকাবাসীর সমন্বয়ে প্রসাশনিক এক সমন্বয় সভায় আইন শৃংখলা রক্ষায় করা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।
জানা গেছে, ১০ মাঘ মাইজভান্ডার দরবার শরীফে গাউছুল আজম মাইজভান্ডারীর ওরশ উপলক্ষে গাউছিয়া আহম্মদীয়া মনজিল, গাউছিয়া রহমানীয়া মনজিল, গাউছিয়া মঈনীয়া মনজিল, গাউছিয়া হক মনজিল, গাউছিয়া হাদি মনজিল, নেজামীয়া মনজিল সহ প্রত্যেক মনজিলে খতমে কোরআন, খতমে গাউছিয়া, খতমে খাজেগান, মিলাদ মাহফিল, হালকায়ে জিকির, ছেমা মাহফিল, বিশেষ মুনাজাদ, আলোক সজ্জা করা হয়েছে। আইন শৃংখলা রক্ষায় থানা পুলিশ-র‌্যাব-আনসার ও সহস্রাদিক বিশেষ সেচ্ছা সেবক বাহিনী নিয়োজিত থাকবে।
দরবারে-গাউছিয়া আহমদিয়া মনজিলের শাহাজাদা সৈয়দ নিহাদুল ইসলাম মাইজভান্ডারী জানান, গাউছুল আজম মাইজভান্ডারীর ১১২তম ওরশ উপলক্ষ্যে তিনি যেই ঝাঁন্ডা নিয়ে হাসরের ময়দানে প্রবেশ করবেন বলে জানান দিয়েছিলেন বিভিন্ন কালামে, সেই নামানুসারে ”লেওয়া-ই-আহমদী” নামক একটি মুখ্যপত্রের মোড়ক উম্মোচন করা হবে সোমবার বাজে আছর।
গাউছিয়া আহমদীয়া মনজিল (শাহ এমদাদীয়া)’র নায়েবে সাজ্জাদানশীন সৈয়দ ইরফানুল হক মাইজভান্ডারী বলেন, বংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল ছাড়াও ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, বার্মা, ইরাক, সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকেও ধর্ম প্রাণ মুসলমানরা মাইজভান্ডার শরীফে আসবেন। আমরা পুরো ধর্মীয় ভাবগাম্ভীয্যে, যেমন- প্রতি ক্যাম্পে-ক্যাম্পে প্রত্যেক নামাজের ওয়াক্তে নামাজ আদায় করা, ধর্মীয় রীতি-নীতি মেনে ওরশ শরীফ উদযাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাকের হোসেন মাহমুদ বলেন, আইন শৃংখলা সমন্বয় সভায় নাজিরহাট ঝংকার মোড়ে পরিবহন শ্রমিকের নামে এবং ছাড়ালিয়ার হাটের সড়কে গাড়ি পার্কিং এর নামে চাঁদা আদায়ের ব্যাপক অভিযোগ উঠেছে। এই বিষয় গুলোকে গুরুত্ব দিয়ে আমাদের পুলিশ বাহিনীর সাথে, র‌্যাব-বিজিবি-ডিবি পুলিশ নিয়োজিত থাকবে।
ফটিকছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক কুমার রায় বলেন, সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারীর ১০মাঘ ওরশ উপলক্ষে মদ-জুয়া-সার্কাস-ভিডিও প্রদর্শন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ক্লোজ-সার্কিট ক্যামলা ও ভিডিও চিত্র ধারণের মাধ্যমে সার্বক্ষনিক নজরদারি করা হবে। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রনসহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিধান্তের জন্য জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট সমন্বয়ে ভ্রাম্যমান আদালত সব সময় টহল রত থাকবে। যানবাহন পার্কিং এর জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে নাজিরহাট নতুন রাস্তার মাতায়, ফটিকছড়ি সদরে ও নানুপুর লায়লা-কবির কলেজ মাঠে। পুকুর আবর্জনা মুক্ত রাখা হয়েছে। প্রয়োজনীয় পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পর্যাপ্ত স্যানিটেশন ব্যবস্থা করা হয়েছে। সকল প্রকার যোগাযোগের জন্য একটি তথ্য কেন্দ্র খোলা হয়েছে।