খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ে উন্নয়নপাহাড়ের সংবাদবিশেষ প্রতিবেদনমানিকছড়িশিরোনামস্লাইড নিউজ

সৌর বিদ্যুতে আলোকিত হলো মানিকছড়ির প্রত্যন্ত জনপদ

আবদুল মান্নান: ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র উদ্যোগ,ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ এ শ্লোগানে দেশব্যাপি বিদ্যুৎবিহীন লোকালয়ে হত-দরিদ্র জনগোষ্টি’কে ডিজিটালের আওতায় আনতে চলছে সৌর বিদ্যুতে জনপদ আলোকিত করার কর্মযজ্ঞ। ২০১৬-২০২০ পর্যন্ত মানিকছড়ি উপজেলার প্রত্যন্ত জনপদে স্কুল-মাদরাসা,মসজিদ-মন্দির, ক্যায়ং, দরিদ্র পরিবার, জনসমাগমস্থল( অফিস-আদালত,রাস্তা-ঘাট) উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ৪ শতাধিক হোম সিস্টেম ও স্ট্রীট লাইট বসানোসহ উপজেলার ৩টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন সোলার প্যানেলে ফ্যান,লাইট ও মোটর পরিচালনায় ডিজিটালের ছোঁয়া অনায়াসে ভোগ করছে শিক্ষার্থী ও উপকারভোগীরা। জনপদে লেগেছে ডিজিটালের ছোয়া।

সরজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ২০১৬ সালে ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র উদ্যোগ,ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ এ শ্লোগানে দেশব্যাপি বিদ্যুৎবিহীন লোকালয়ে হত-দরিদ্র জনগোষ্টি’কে ডিজিটালের আওতায় আনতে শুরু হয়েছে সৌর বিদ্যুৎ স্থাপন প্রকল্প। এরই অংশ হিসেবে খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলায় গত ২০১৬-২০২০ পর্যন্ত উপজেলা অনুন্নত জনপদ যেখানে এখনো পর্যন্ত বিদূতের ছোয়া লাগেনি। ওইসব লোকালয়ের হত-দরিদ্র পরিবার, স্কুল-মাদরাসা,মসজিদ-মন্দির, ক্যায়ং, জনসমাগমস্থল( অফিস-আদালত,রাস্তা-ঘাট) উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ৪ শতাধিক হোম সিস্টেম ও স্ট্রীট লাইট বসানোর পাশাপাশি উপজেলার প্রত্যান্ত অঞ্চল গোদাতলী, শিলছড়ি ও বাঞ্চারামপাড়া সরকারী ্রপাথমিক বিদ্যারয়ে বসানো হয়েছে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন সোলার প্যানেল(সৌর বিদ্যুৎ)। ওইসব প্যানেলে প্রতিষ্ঠানে ফ্যান,লাইট ও মোটর দিয়ে অনায়াসে শিক্ষার্থীরা শীতল হাওয়া ও গভীর নলকূপের পানি পানসহ উপকারভোগীরা ভোগীদের মাঝে লেগেছে ডিজিটালের ছোয়া। এতে করে তৃণমূলে লেগেছে পরিবর্তনের হাওয়া। গোদাতলী স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম ও শিলছড়ির প্রধান শিক্ষক গণি মিয়া এ প্রসঙ্গে বলেন, জীবনে কোন দিন ভাবিনাই উপজেলার সদর থেকে ৮/৯ কিলোমিটার অনুন্নত জনপদে শিক্ষার্থীদের মাঝে ফ্যান,লাইটিং এর পাশাপাশি গভীর নলকূপের পানি খাওয়াতে পারবো। উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শুভাষীস বড়–য়া এ প্রসঙ্গে বলেন, শেখ হাসিনা’র উদ্যোগ,ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ এ শ্লোগানের ফসল আজ তৃণমূলেও লেগেছে।

উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মাঈন উদ্দীন তৃণমূলে সৌর বিদ্যুৎ প্রসঙ্গে বলেন,‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রকৃত প্রাপ্তদের মাঝে সোলার বিতরণে প্রত্যন্ত জনপদে ডিজিটালের ছোয়া পৌছে দিতে প্রশাসনের সাথে সম্মিলিতভাবে আমরা কাজ করছি। ফলে উপকারভোগীরা সঠিক প্রাপ্যতা পেয়েছে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. কামাল উদ্দিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী’র এই বিশেষ প্রকল্পটি তৃণমূলে সাড়া জাগিয়েছে। ২০১৬-২০২০ পর্যন্ত উপজেলায় ৩শত ৩১টি হোম সিস্টেম ও ৮৬টি স্ট্রীট লাইট বসানো হয়েছে।