খাগড়াছড়িখাগড়াছড়ি সংবাদপাহাড়ের সংবাদমানিকছড়িশিরোনামস্লাইড নিউজ

স্ব-নির্ভর জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধু’র কন্যা শেখ হাসিনার বিকল্প নেই-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা

মানিকছড়ি প্রতিনিধি: বর্তমান আ.লীগ সরকারের ২য় মেয়াদের ৪র্থ বছর এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০তম বর্ষপূর্তিতে মানিকছড়িতে আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত বিশাল জনসমাবেশ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ির সাংসদ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উপজাতি শরণার্থী বিষয়ক টাক্সর্ফোস চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা (এম.পি)। এ সময় তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ উন্নয়নে বিশ্বাস করে এবং জনগণকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি রাখতে জানে। যার কারণে আজ পাহাড়ের পরতে পরতে উন্নয়নের চিত্র দৃশ্যমান। স্ব-নির্ভর জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধু’র কন্যা শেখ হাসিনা’র বিকল্প বাংলায় জন্ম হয়নি। পার্বত্যাঞ্চলে জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে আ.লীগ সরকার অভাবনীয় উন্নয়ন করেছে। সরকারের ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে এদেশ খুব শিগরই উন্নত বিশ্বে পর্দাপণ করবে।

বৃহস্পতিবার ৪ জানুয়ারী আওয়ামীলীগ সরকারের ২য় মেয়াদের ৪র্থ বছরপূর্তি এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে মানিকছড়ি আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগ উপজেলার মহামুনি বাসস্টেশনে আয়োজন করেন বিশাল সমাবেশ। আর এ বিশাল সমাবেশে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাঈন উদ্দীন সঞ্চালিত এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ২৯৮ নং খাগড়াছড়ির সাংসদ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উপজাতি শরণার্থী বিষয়ক টাক্সর্ফোস চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা (এম.পি)। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্ঠা মন্ডলীর সদস্য ও সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য মো. নুর নবী, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এম.এ. রাজ্জাক, মাটিরাংগা পৌর মেয়র মো. শামসুল আলম, জেলা পরিষদ সদস্য এম.এ. জব্বার, উপজেলা চেয়ারম্যান ম্রাগ্য মারমা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মো.শফিকুর রহমান ফারুক, মো.শহীদুল ইসলাম মোহন,মো. রফিকুল ইসলাম বাবুল, আওয়ামীলীগ নেতা এম.ই. আজাদ চৌধুরী বাবুল, যুবলীগ সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম বাবুল,সাধারণ সম্পাদক মো. জাহেদুল আলম মাসুদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. সামায়উন ফরাজী সামু, ছাত্রলীগ সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন,সাধারণ সম্পাদক মো. মোস্তফা কামালসহ আওয়ামীলীগ ,যুবলীগ, শ্রমিকলীগ,স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

সভায় বিশেষ অতিথি ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দের বক্তব্য শেষে প্রধান অতিথি উপস্থিত হাজারা হাজার জনসমাবেশে বলেন, আওয়ামীলীগ উন্নয়নে বিশ্বাস করে এবং জনগণকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করে। যার কারণে আজ পাহাড়ে উন্নয়নের চিত্র দৃশ্যমান। স্ব-নির্ভর জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধু’র কন্যা শেখ হাসিনা’র বিকল্প নেই উল্লখ্য করে তিনি আরো বলেন, পার্বত্যাঞ্চলে জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে আ.লীগ সরকার অভাবনীয় উন্নয়ন করেছে। সরকারের ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে এদেশ খুব শিগরই উন্নত বিশ্বে পর্দাপণ করবে। মোট কথা আওয়ামীলীগ সরকার সৃষ্ঠি করতে জানে, ধ্বংস করতে জানে না। ডিজিটাল বাংলাদেশ সর্ম্পকে তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সরকার দেশকে ডিজিটালে রুপান্তর করে উন্নয়নের মহা সড়কে দেশ নিয়ে গেছে। সরকারের ধারাবাহিকতা রাখলে এ অগ্রযাত্রা বিশ্বে উদাহরণ হয়ে থাকবে।
বক্তব্য শেষে তিনি উপজেলার দরিদ্র,প্রতিবন্ধী ও অসহায় ব্যক্তিদের হাতে শীতবস্ত্র তুলে দেন। পরে সভাপতির বক্তব্যের মধ্য দিয়ে বিশাল জনসভার বক্তব্য অংশ মেষ হয়। সন্ধ্যার পর ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা। এর আগে দিবসের শুরুতে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পন করেন ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

এদিকে সমাবেশ পূর্ব উপজেলার ময়ূরখীল-চইক্যাবিল সড়কে মানিকছড়ি খালের ওপর পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়নের বোর্ডের অর্থায়ানে ৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ব্রীজ ও মহামুনি-রাজবাজার সড়কে মানিকছড়ি খালের ওপর ২ কোটি টাকার ব্রীজ( নির্মানাধীণ) এবং জেলা পরিষদ খাগড়াছড়ির অর্থায়নে বড়ডলু নি¤œমাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৬৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত একাডেমিক ভবনসহ ৩টি প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধান অতিথি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপরা।