৮২হাজার উপজাতীয় পরিবারকে পূণর্বাসনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার: পার্বত্য চট্টগ্রাম টাস্কফোর্স কতৃক ৮২হাজার উপজাতি পরিবারকে পূণর্বাসনের প্রতিবাদে ১৯অক্টোবার শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সা

ফটিকছড়িতে ১০ হাজার দুঃস্থ শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ
ঐতিহ্য রক্ষা করে মাদ্রাসার শিক্ষার আধুনিকায়নে কাজ করছে সরকার- নজিবুল বশর
চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) আসনে মনোনয়ন পেলেন যারা

স্টাফ রিপোর্টার: পার্বত্য চট্টগ্রাম টাস্কফোর্স কতৃক ৮২হাজার উপজাতি পরিবারকে পূণর্বাসনের প্রতিবাদে ১৯অক্টোবার শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে মানব বন্ধন করেছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সদস্যরা।

পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগর ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার যৌথ উদ্যোগে এ মানব বন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সভাপতি আব্দুল মজিদ। পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্রপরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক ইখতিয়ার ইমনের সঞ্চালনায় এ মানববন্ধনে সভপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি আলী হোসেন।

ঘন্টাব্যাপী স্থায়ী এ মানব বন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল মজিদ বলেন, ট্রাস্কফোর্সের নাম দিয়ে ৮২ হাজার উপজাতি পরিবারকে পূনর্বাসনের নাম দিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামের উপজাতীয়দের আজন্ম লালিত স্বাধীন জুম্মল্যান্ড করার যে পরিকল্পনা করেছে তা বাাস্তবায়নের নীল নকশা তৈরী করছে। তিনি আরো বলেন, ট্রাস্কফোর্সের সদস্যরা শরনার্থী পূনর্বাসনের নাম দিয়ে সন্ত্রাসীদেরকে পরোক্ষ মদদ দিচ্ছেন। অবিলম্বে তিনি , ট্রাস্কফোর্সের এই বিতর্কিত সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানান।
এতে অন্যান্যদে মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য নাগরিক পরিষদের প্রচার সম্পাদক আরিফ বিল্লাহ, বলেন, পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি আতাউর রহমান, পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি আলী হোসেন প্রমুখ। বক্তারা শরনার্থী পুনর্বাসনের নাম দিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম উপজাতিদের সংখ্যা বৃদ্ধি করে তারা পার্বত্য চট্টগ্রামকে বিচ্ছিন্ন করতে চায় যা বাংলাদেশের অস্তিত্বের জন্য হুমকিস্বরূপ বলেন উল্লেখ করেন, পূনর্বাসনের নামে ভারতীয় নাগরিকদের বাংলাদেশে নাগরিকত্ব প্রদানের মাধ্যমে তারা পার্বত্য চট্ট্রগ্রামকে অস্থিতিশীল করার জন্য ষড়যন্ত্র করছে। ৩৫ বছর ধরে ৩৮ হাজার বাঙালিদের যারা গুচ্ছগ্রামে বসবাস করে, যারা বাংলাদেশের নাগরিক পূনর্বাসন যদি করতে হয় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তাদেরকে করতে হবে।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম, মোহাম্মদ আসিফ, মোহাম্মদ আলাল হোসেন, মোহাম্মদ নাঈম ইসলাম ফারাবী, আমির হোসেন, আল মামুন সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্র/ছাত্রীরা।