পাহাড়ের সংবাদ

বৃক্ষরোপনে উদ্বুদ্ধ করতে ত্রিশাল থেকে পদযাত্রা খাগড়াছড়িতে শেষ হবে বৃহস্পতিবার

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: বৃক্ষরোপনে উদ্বুদ্ধ করতে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ফলদ বাংলাদেশ’ ত্রিশাল থেকে পায়ে হেঁটে বৃহস্পতিবার বিকেলে খাগড়াছড়ি পৌঁছাবে। গত ১৬ ডিসেম্বর গাছের গুরুত্ব, উপকারিতা এবং পরিবেশ ও বাসস্থানের জন্য ক্ষতিকারক বৃক্ষের প্রভাব সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ৪’শ কিলোমিটার পদযাত্রার সমাপ্তি ঘটবে খাগড়াছড়িতে।

১৬ ডিসেম্বর ত্রিশালের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে এই পদযাত্রা। পথে তারা ৭টি জেলাসহ ২৪টি উপজেলাসহ দেড় শতাধিক বাজারে ক্যাম্পেইন করবে। এই ১৬ দিনে দলটি সারাদিন পদযাত্রা করে ময়মনসিংহের গফুরগাঁও, কিশোরগঞ্জ, কটিয়াদী, ভৈরব, ব্রাম্মণবাড়িয়া, কসবা, ব্রাহ্মণপাড়া, কুমিল্লা, চৌদ্দগ্রাম, ফেনী, চট্টগ্রামের বারৈয়ারহাট, রামগড়, জালিয়াপাড়া, খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা হয়ে খাগড়াছড়ি শহর পর্যন্ত ৪০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেবে।

এই আয়োজনের অগ্রভাগে রয়েছেন কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক দ্রাবিড় সৈকত, সেকশন অফিসার মাহমুদুল আহসান লিমন, নাট্যকলা ও পরিবেশনা বিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী রাতুল মুন্সি, হুমায়ুন কবির টুটুল, শাহীন আলম, সুজালো চাকমা, স্থানীয় সরকার ও নগর উন্নয়ন বিভাগের শিক্ষার্থী নিউটন চাকমা, ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থী রঞ্জিত কুমার ও ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া বিভাগের শিক্ষার্থী ছাব্বির আনাম রেজা। ক্যাম্পেইনকালে এ ৯ সদস্যের সঙ্গে যুক্ত হবেন সংগঠনের স্থানীয় সদস্যরা।

সংগঠনের প্রধান সমন্বয়ক দ্রাবিড় সৈকত বলেন, বাংলাদেশে অপরিকল্পিতভাবে বৃক্ষরোপণ হচ্ছে। বিদেশি দাতা সংস্থাগুলো তাদের বাণিজ্যিক স্বার্থে সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনাকে কাজে লাগাচ্ছে। সার, বীজের ব্যবসাকে পাকাপোক্ত করার জন্য পরিবেশের জন্য বিপর্যয়কর জেনেও ক্ষতিকর বৃক্ষরোপণ করছে। এভাবে চলতে থাকলে দেশের তথা পরিবেশের ভবিষ্যৎ অন্ধকার। তাই আমরা মাঠে নেমেছি।

বৃক্ষপদযাত্রার টিমলিডার মাহমুদুল আহসান লিমন বলেন, পরিবেশের জন্য বৃক্ষ অত্যন্ত জরুরি। কিন্তু বৃক্ষকে ব্যবসার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এসব অনিয়মের প্রতিবাদ ও জনসচেতনতার জন্যই মূলত আমরা এ কর্মসূচি নিয়েছি। তিনি জানান, ২০১২ সাল থেকে ফলদ বৃক্ষরোপণের প্রয়োজনীয়তার ওপর কাজ করছেন তারা। এ পর্যন্ত তারা দেশের নানা প্রান্তে দুই লাখ ৭৫ হাজার ফলদ বৃক্ষরোপণ করেছেন। সেগুলোর ৯৫ ভাগই টিকে আছে।

খাগড়াছড়ি পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন-এর সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী ও সা: সম্পাদক মুহাম্মদ আবু দাউদ জানান, ‘ফলদ বাংলাদেশ’-এর এই পদযাত্রা পরিবেশ-প্রকৃতি সংরক্ষণে একটি সময় উপযোগী সাহসী উদ্যোগ। খাগড়াছড়ি এসে পৌঁছানোর প্রাক্কালে বুধবার বিকেলে তাঁদের শহর সংলগ্ন সুবিধাজনক স্থানে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হবে।

‘ফলদ বাংলাদেশ’ পদযাত্রীরা বৃহস্পতিবার সকালে খাগড়াছড়ি শহীদ দেীতে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন, ফলদ বাগানীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত, সাংবাদিকদের সাথে অভিজ্ঞতা বিনিময় এবং পরিবেশকর্মীদের সাথে সভা করবেন।