ইঁদুর নিধনে, ইঁদুর ভক্ষক প্রাণীদের রক্ষাকরা জরুরী: কৃষিবিদ হাসিনুর রহমান

ইঁদুর নিধনে, ইঁদুর ভক্ষক প্রাণীদের রক্ষাকরা জরুরী: কৃষিবিদ হাসিনুর রহমান

মানিকছড়ি প্রতিনিধি: সারাদেশের ন্যায় খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতেও পালিত হচ্ছে ইঁদুর নিধন অভিযান-২২। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো "বছরে ইঁদুর শস্য খাচ্ছে লক্ষ

আন্তর্জাতিক নারী দিবসে এইচডব্লিউএফ ও নারী সংঘের র‌্যালি ও সমাবেশ
ফেনী নদীতে গোসল করতে নেমে ৩ শিশুর করুন মৃত্যু
মানিকছড়িতে ব্যবসায়ী নিখোঁজের ঘটনায় আটক ২

মানিকছড়ি প্রতিনিধি: সারাদেশের ন্যায় খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতেও পালিত হচ্ছে ইঁদুর নিধন অভিযান-২২। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো “বছরে ইঁদুর শস্য খাচ্ছে লক্ষ লক্ষ টন, খাদ্য ঘাটতি রুখতে দরকার ইঁদুর নিয়ন্ত্রণ”। ১৮ অক্টোবর মঙ্গলবার সকাল ১০টায় উপজেলা কৃষি অফিস সম্মেলন কক্ষে ইঁদুর নিধন অভিযান -২২ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ হাসিনুর রহমানের একথা বলেন।

উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ ইউনুছ নুরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম বাবুল। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ হাফিজ উদ্দিন, ভেটেরিনারী সার্জন রনি কুমার দে, সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা অনুপম বড়ুয়া,এ সময় উপজেলার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ ও বিভিন্ন ইউনিয়নের কৃষকেরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি বক্তব্যে ভাইস-চেয়ারম্যান বলেন, বর্তমান সরকার কৃষিকে সব থেকে গুরুত্ব দিচ্ছেন। কৃষক ও কৃষিকাজের উন্নয়নের মাধ্যমেই খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে পারব।

ইঁদুরকে জাতীয় শত্রু আখ্যা দিয়ে কৃষিবিদ মোঃ হাসিনুর রহমান বলেন, ১টি ইঁদুর বছরে প্রায় ৫০ কেজি গোলাজাত শস্য নষ্ট করে। এরা গর্তে ২০ কেজিরও বেশি খাদ্য জমা করতে পারে। প্রতি জোরা ইঁদুর বছরে তিন হাজার ইঁদুর জন্ম দিতে পারে। ইঁদুর নিধনে একক নই, একই এলাকায় একযোগে কাজ করতে হবে। ইঁদুর নিধনে রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহারের সাথে সাথে ইঁদুর ভক্ষক প্রাণী পেঁচা, সাপ, গুইসাপ ও বিড়াল ইত্যাদি প্রাণীদের রক্ষা করা অতিব জরুরী।