খাগড়াছড়ি জোনের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

খাগড়াছড়ি জোনের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: মানবিক সেবার অংশ হিসেবে খাগড়াছড়ি জেলা সদর জোনের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী খাগড়াছড়ি সদর জোন

দীঘিনালায় বিএনপির নির্বাচনী প্রস্তুতি সভা
মানিকছড়ি প্রেসক্লাব সভাপতি মাঈন উদ্দিন জেলা পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় ফুলেল শুভেচ্ছা
গুইমারায় গাছের ডাল পড়ে কাভার্ড ভ্যান চালক নিহত
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: মানবিক সেবার অংশ হিসেবে খাগড়াছড়ি জেলা সদর জোনের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী খাগড়াছড়ি সদর জোন। ১১ জানুয়ারি বুধবার সকালে সদর জোন কৃর্তক পরিচালিত শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচীতে অসহায় ও দোস্ত দুইশতাধিক  বাঙ্গালী এবং উপজাতীয় জনগোষ্ঠীর মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।
শীতার্ত মানুষ, শীত বস্ত্র (কম্বল) পেয়ে সেনাবাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং ভবিষ্যতেও বিভিন্ন প্রয়োজনে নিরাপত্তা বাহিনীর সহয়তা কামনা করেন।
শীতবস্ত্র বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কমান্ডার লে. কর্নেল সাইফুল ইসলাম সুমন বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সবসময় পাহাড়ের দুস্থ, গরীব ও অসহায় মানুষদের পাশে থেকে তাদের সেবা প্রদান এবং যেকোন বিপদে পাশে দাঁড়াতে বদ্ধপরিকর। পাহাড়ে বসবাসকারী জনগণ যাতে শান্তি ও সম্প্রীতির সাথে নিরাপদে বসবাস করতে পারে সে লক্ষ্যে এই জোনের সকল সদস্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। মানুষের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে এ ধরণের অনুদানমূলক কর্মসূচি ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।
তিনি আরও বলেন, আজ খাগড়াছড়ি সদর জোন যেকোনো দুর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতিতে আর্ত-মানবতার সেবায় বেসামরিক প্রশাসনকে তাৎক্ষণিক সহায়তায় সার্বক্ষণিক পাশে ছিল এবং আগামীতেও পাশে থাকবে। শান্তি, সম্প্রীতি এবং উন্নয়ন এই মূলমন্ত্রকে সামনে রেখে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পার্বত্য চট্টগ্রামে দীর্ঘদিন যাবৎ অত্যন্ত দক্ষতার সাথে পেশাগত দায়িত্ব পালন করে আসছে। এ জেলাকে উন্নত এবং এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব আমাদের সকলের। ভবিষ্যতেও পাহাড়ী জনসাধারণসহ পাহাড়ে বসবাসরত জনগণের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সেনাবাহিনীর এরূপ উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি জোনের ভারপ্রাপ্ত জোন উপ-অধিনায়ক মেজর তালুকদার রাব্বী আহমেদ, কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মো. শামীম রহমানসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।

COMMENTS