গুইমারাতে মহানবী(স:)কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র, কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে মানব বন্ধন

শাহ আলম রানা, গুইমারা: মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য ও ম্যাগাজিনে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে খাগড়

মানিকছড়িতে কৃষি উপকরণ বিতরণ
খাগড়াছড়িতে যুবদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
আপডেট: মানিকছড়িতে সন্ত্রাসীর গুলিতে আহত জেএসএস’ নেতা শংকামুক্ত

শাহ আলম রানা, গুইমারা: মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য ও ম্যাগাজিনে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে খাগড়াছড়ি’র গুইমারাতে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
“খাগড়াছড়ি ক্বওমী মাদরাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদ” গুইমারা শাখার আয়োজনে সর্বস্তরের ধর্মীয় মুসলিম জনতা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচীর আয়োজন করে।

৩০অক্টোবর বাদ জুমা ওলামা ঐক্য পরিষদের গুইমারা শাখার সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রতিবাদী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন ক্বওমী মাদরাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি ও গুইমারা জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা ক্বারী ওসমান গণি ও গুইমারা উপজেলা শাখার কোষাধ্যাক্ষ মাওলানা খলিলুর রহমান।
গুইমারা বাজারস্থ খাগড়াছড়ি-ফেনী-চট্টগ্রাম আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে আধা ঘন্টাব্যাপী স্থায়ী এ মানববন্ধনে সহস্রাধিক ধর্মপ্রাণ মুসলমান অংশগ্রহণ করে।

এ সময় বক্তারা বলেন, ফরাসি ম্যাগাজিন শার্লি এবদো ও প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর কুরুচিপূর্ণ কর্মের কারণে বিশ্বের শত শত কোটি মুসলিমের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়েছে। এ রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে হলে অবিলম্বে ফ্রান্স সরকারকে ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায় মুসলিম জনতা তাদের সর্বশক্তি দিয়ে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে বলে জানান।

বক্তারা সরকারের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে ডেকে আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ জানানো এবং ফ্রান্সের সাথে বাণিজ্যিক ও কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে ।
এছাড়াও জাতিসংঘ থেকে ফ্রান্সের সদস্য পদ বাতিল করে নবীর কটূক্তিকারীদের আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনালে বিচারের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ফ্রান্সে মত প্রকাশের স্বাধীনতা ক্লাসে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর কার্টুন প্রদর্শন করেন ইসলাম বিদ্বেষী শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি। এর জেরে গত (১৬ অক্টোবর) ফ্রান্সের একটি সড়কে ওই শিক্ষকের মাথা কেটে নেয় আবদুল্লাহ আনজরভ নামে ১৮ বছর বয়সী এক কিশোর। যদিও হামলার কিছুক্ষণের মধ্যেই কিশোরকে গুলি করে হত্যা করে পুলিশ। এরপরই ইসলাম ধর্ম ও বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন বন্ধ করা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। তার এ বিবৃতি কোটি কোটি মুসলিমের হৃদয়ে আঘাত করে। তার এ ধরনের ইসলাম বিদ্বেষী বক্তব্যের কারনে বিভিন্ন দেশে মুসলমানেরা বিক্ষোভ শুরু করেছে।