রামগড় জেএসএস (সংস্কার) উপজেলা জেলা সাংগঠনিক সম্পাদককে গুলি করে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার: পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জনসংহতি সমিতি বা (জেএসএস) সংস্কারপন্থী দলের খাগড়াছড়ি’র জেলার রামগড় উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্

খাগড়াছড়ি শহরে আগুনে পড়ুলো বসত ঘর, ক্ষতি ৩লাখ
লক্ষ্মীছড়ি বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত
প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে রামগড় ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা

স্টাফ রিপোর্টার: পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জনসংহতি সমিতি বা (জেএসএস) সংস্কারপন্থী দলের খাগড়াছড়ি’র জেলার রামগড় উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মোহন ত্রিপুরা(৩০)কে ব্রাশ ফায়ারে হত্যা করা হয়েছে। ১৪জানুয়ারী সন্ধ্যা আনুমানিক ৭টা দিকে জেলার রামগড় উপজেলাধীন জগন্নাথ পাড়া হিলট্রাক্টস ডিস্ট্রিলারিজ গোডাউনের সামনে এঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ১৪জানুয়ারি সোমবার সন্ধ্যায় জেএসএস(সংস্কার)র উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মোহন কুমার ত্রিপুরা ঘটনাস্থলে অবস্থান করার খবর পেযে একদল সন্ত্রাসীকে তাকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ী ব্রাশ ফায়ার করে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে রামগড় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক রতন কুমার খীসা নিহতের শরীরে ৩টি গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে জানান। নিহত মোহন ত্রিপুরা জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার থলি চন্দ্র মহাজন পাড়ার কৃষ্ণ ত্রিপুরা’র ছেলে। সে স্ত্রী ও ২কন্যা সন্তানকে নিয়ে রামগড় উপজেলা সদরে ভাড়া বাসায় বসবাত করতো বলে জানা গেছে।

এদিকে নিহত মোহন ত্রিপুরা সংস্কারপন্থী হওয়ায় তাকে পার্বত্য চুক্তিি বরোধী আঞ্চলিক স্বশস্ত্র সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ) কর্মীরাই গুলি করে পালিয়ে যায় বলে নিহতের ছোট ভাই সুমন ত্রিপুরা অভিযোগ করেন।

রামগড় থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। এঘটনায় জড়িতদের আটক করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে বলেন জানান তিনি। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা হয় নি। তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে এবং নিহত মোহন ত্রিপুরার লাশ ময়না তদন্তের জন্য সকারে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করার হবে বলেও জানান তিনি।