পাহাড়ের সংবাদ

গুইমারায় সেগুন গাছ কেটেছে দূর্বৃত্তরা

স্টাফ রিপোর্টার: গুইমারায় দুই বছর আগে সৃজিত পনেরো একর বাগানের বেশকিছু সেগুন গাছ কেটে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা।মঙ্গলবার মধ্যরাতে উপজেলার সিন্দুকছড়ি ইউনিয়নের পঙ্খিমুড়া ঠান্ডাছড়ি এলাকায় নিরব আলী,খতিজা বেগম ও আজিজের বাগানে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।দূর্বৃত্তদের বিষয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছেন বলে জানান পুলিশ। নিরব আলী জানান, সন্ত্রাসীরা তার কাছে চাদাঁ চেয়েছে।তিনি দেননি, এ জন্য তার বাগান কেটে দিয়েছে ওরা।অন্যদিকে দিকে খতিজা বেগম ও আজিজের ছেলে জানান ভূমি বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটিয়েছে প্রতিপক্ষ অমরবালা ত্রিপুরা ,ঝলন্ত ত্রিপুরা,ঝংকা বালা ত্রিপুরার ।

অপর দিকে অভিযুক্ত অমরবালা ত্রিপুরা ,ঝলন্ত ত্রিপুরা,ঝংকা বালা ত্রিপুরার বলছেন ,জমি ও কাগজ পত্র নিয়ে বিরোধ আছে সত্য।তবে গাছ কাটার বিষয়ে তারা কিছুই জানেন না।তারা ওই বাগান এলাকা থেকে দূরে বসবাস করেন।জমি বিরোধের বিষয়ে তারা বিচার প্রার্থী হয়েছেন স্থানীয় ইউপি সদস্যর নিকট। এ নিয়ে বৈঠক ও হয়েছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,বড় একটি পাহাড়ে নিরব আলী,খতিজা বেগম,আজিজের ছেলে প্রায় পনেরো একর জমিতে বছর দেড়েক আগে সেগুন গাছের চারা রোপন করেছেন।তাদের দাবি কবিলিয়ত মূলে জমি গুলো ক্রয় করেছেন তারা।স্থানীয় অমর বালা ত্রিপুরা,ঝলন্ত ত্রিপুরা,ঝংকা বালা ত্রিপুরার আজিজ ও খতিজা বেগমের জায়গাটিতে চারা রোপনে বাধা দেয়।তাদের দাবি জমিটি খাস হিসেবে অনেক আগে অমর বালা ত্রিপুরা কিনেছেন।নিরব আলীও আজিজের ছেলে দলিলের ফটোকপি দেখাতে পারলে ও খতিজা বেগম দলিল দেখাতে পারেনি।

এবিষয়ে সিন্দুকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান রেদাক মারমা জানান,নিরব আলীসহ দ্ইুজন লোক সকালে তাকে জানিয়েছেন, রাতে তাদের বাগানের গাছ কেটে দিয়েছে।তবে কে কেটেছে তারা জানেনা।চেয়ারম্যান দুপুরে ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন।