দীঘিনালায় যথাযোগ্য মর্যাদায় বিজয় দিবস পালিত

মোঃ আল আমিন, দীঘিনালা: খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলায় পুস্পমাল্য অর্পন, কুচকাওয়াজ ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনার মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে মহান বিজয় দিব

পাহাড়কে অশান্ত করার ষড়যন্ত্র বন্ধ করতে হবে -নবাগত গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার
মাটিরাঙায় গীতা শিক্ষা কমিটি মাটিরাঙ্গা শাখার অভিষেক
মহালছড়িতে ফুল বিজু উদযাপনের মধ্য দিয়ে বৈসাবি উৎসব শুরু

মোঃ আল আমিন, দীঘিনালা: খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলায় পুস্পমাল্য অর্পন, কুচকাওয়াজ ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনার মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে মহান বিজয় দিবস। দিবসটির নানা কর্মসূচির অংশ হিসেবে

সূর্যোদয়ের সাথে সাথে উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পমাল্য অর্পন করা হয়। এরপর সকাল ৯টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কুচকাওয়াজ প্রদর্শন, ডিসপ্লে ও ক্রীড়া অনুষ্ঠান এবং বেলা সাড়ে ১১ টায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সকালে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ উল্লাহ, উপজেলা পরিষদ পক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান নব কমল চাকমা, বীর মুক্তিযোদ্ধা পক্ষে উপজেলা কমিটির সকল সদস্য, দীঘিনালা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উত্তম চন্দ্র দেব, উপজেলা আওয়ামীলীগ, উপজেলা বিএনপিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সংগঠন, যুব রেড ক্রিসেন্ট দীঘিনালা উপজেলা ইউনিট, খাগড়াছড়ি ব্লাড ডোনারস এসোসিয়েশনের দীঘিনালা ইউনিট সহ বিভিন্ন সংগঠন জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুস্পমাল্য অর্পন করেন।

অপরদিকে, দীঘিনালা সেনা জোন কর্তৃক প্রীতিভোজের আয়োজন করা হয়। জোন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল ফেরদৌস জিয়া উদ্দিন মাহমুদ, মেজর রাফি হায়দার চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ উল্লাহ থানার ওসি উত্তম চন্দ্র দেব, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এনামুল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো কাশেম, মেরুং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রহমান কবির রতন, কবাখালি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসেন, বোয়াখালী বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ জসিম উদ্দিন, দীঘিনালা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, দীঘিনালা জোন, উপজেলা প্রশাসন, কাশেম এন্ড ব্রাদার্স এর আয়োজনে সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে, এতে অতিথি শিল্পী ও স্থানীয় শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করবেন।