অস্ত্রসহ আটকের পর হার্ডএ্যাটাকে ইউপিডিএফ সংগঠকের মৃত্যু

অস্ত্রসহ আটকের পর হার্ডএ্যাটাকে ইউপিডিএফ সংগঠকের মৃত্যু

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: দীঘিনালা উপজেলার বাবুছড়া ইউনিয়নের মনিভদ্র কার্বারীপাড়া এলাকায় থেকে অস্ত্রসহ দীঘিনালা উপজেলার ইউপিডিএফ সংগঠক মিলন চাকমা সৌরভ

পাহাড়ে কফি চাষ: সফলতা পাচ্ছেন কৃষকরা
সেনা সদস্যের মৃত্যুর ঘটনায় খাগড়াছড়িতে পিবিসিপি’র নিন্দা
রামগড়ে সেনাবাহিনীর বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: দীঘিনালা উপজেলার বাবুছড়া ইউনিয়নের মনিভদ্র কার্বারীপাড়া এলাকায় থেকে অস্ত্রসহ দীঘিনালা উপজেলার ইউপিডিএফ সংগঠক মিলন চাকমা সৌরভ (৪৪) আটকের পর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত হয়েছে।

মঙ্গলবার ( ১৫ মার্চ ২০২২) ভোরে আটকের পর সে অসুস্থ বোধ করলে প্রথমে দীঘিনালা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১১টায় সেখানেই তার মৃত্যু হয়। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পেয়ার আহম্মেদ সাবাদিকদের এ তথ্য জানান।

নিরাপত্তাবাহিনী সূত্র জানায়, একাধিক মামলার পলাতক আসামী মিলন চাকমাকে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর টহল দলের হাতে আটক হয়। এ সময় তার বাসা থেকে তল্লাশি করে ১টি পিস্তল,৪ রাউন্ড গুলি,৩টি অবৈধ ওয়াকিটকি, আটটি মোবাইল,১টি ল্যাপটপ ও ১টি পোর্টেবল জেনারেটরসহ গুরুত্বপূর্ন নথি উদ্ধার করা হয়।

মিলন চাকমাকে খাগড়াছড়ি দীঘিনালা উপজেলার বাবুছড়া মনিভদ্র কার্বারীপাড়া এলাকা থেকে সেনাবাহিনী আটকের পর অসুস্থ বোধ করলে দীঘিনালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় বলে সূত্র নিশ্চিত করে।

এদিকে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর মুখপাত্র অংগ্য মারমা মঙ্গলবার, ১৫ মার্চ সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় অমানুষিক শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে ইউপিডিএফ’র সংগঠক মিলন চাকমা ওরফে সৌরভ (৪৭)-কে [জাতীয় পরিচয়পত্র অনুসারে তার নাম নবায়ন চাকমা] হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।