রামগড়ে মৈত্রী সেতু পরিদর্শনে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুই প্রু অপু

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু বলেছেন, ‘বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু’ বাস্তবায়নের মাধ্যমে উপ-মহাদেশের ভ্রা

খাগড়াছড়িতে জনতার হাতে অস্ত্রসহ ইউপিডিএফ‘র ৪ চাঁদাবাজ আটক
খাগড়াছড়িতে নিরিহ চাষীদের উপর নির্যাতনে চাঁদা দাবির প্রতিবাদে বিক্ষোভ-সমাবেশ
হতদরিদ্রদের চিকিৎসার জন্য আর্থিক অনুদান প্রদান করল গুইমারা রিজিয়ন

স্টাফ রিপোর্টার: খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু বলেছেন, ‘বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু’ বাস্তবায়নের মাধ্যমে উপ-মহাদেশের ভ্রাতৃপ্রতিম দুই দেশের মধ্যে ঐতিহাসিক যোগসূত্র স্থাপিত হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং জাতির জনকের জন্ম শতবার্ষিকীর মাহেন্দ্রক্ষণে অর্থনৈতিক এই কর্মযজ্ঞ পার্বত্যাঞ্চলের ‘পাহাড়ি-বাঙালি’ সকল সম্প্রদায়ের মাঝে অগ্রগতির আশা সঞ্চার করেছে। এজন্য বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং ভারত সরকারসহ ত্রিপুরা রাজ্যের মূখ্যমন্ত্রী এবং সকল নাগরিকদের কাছে আমরা ভালোবাসার বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে গেলাম। তিনি সোমবার বিকেলে রামগড়ের মহামুনি এলাকায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে ফেণী নদীর উপর নির্মিত মৈত্রী সেতু পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের কাছে এই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, উনিশ’শ একাত্তর সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের মুক্তিকামী মানুষের অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রামে ‘রামগড়’ ছিল সংকটকালীন এক উত্তরণ জনপদ। কালের পরিক্রমায় সেই রামগড়ের মাধ্যমেই সরকার নতুন এক অর্থনৈতিক সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন করতে চলেছে। এটির মাধ্যমে বৃহত্তর চট্টগ্রাম এবং পার্বত্য খাগড়াছড়ির মানুষের জীবনমান উন্নয়ন ও কমংসংস্থানের বিশাল ক্ষেত্র সৃষ্টি হবে। তরুণ রাজনীতিক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ‘বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু’ পরিদর্শনকালে সেতুতে বৈকালিক ভ্রমণে আসা বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সাথে কুশল বিনিময় ছাড়াও কর্মরত ‘বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি)’ সদস্যদের একাগ্র দায়িত্ব পালনের জন্য ধন্যবাদ জানান।

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু’র সাথে এসময় খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য খোকনেশ্বর ত্রিপুরা ও মেমং মারমা, খাগড়াছড়ি জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মুকুল চাকমা, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ সা: সম্পাদক বিশ্বজিত রায়দাশ, রামগড় পৌরসভা নির্বাচনে সম্ভাব্য মেয়রপ্রার্থী রফিকুল আলম কামাল, রামগড় মহকুমা ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক উত্তম সরকার, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অনন্ত কুমার ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাব-এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আবু দাউদ, খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়ন (কেইউজে)-এর সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী, খাগড়াছড়ি জেলা শিল্পকলা একাডেমী’র যুগ্ম-সম্পাদক সাংবাদিক নাজিম উদ্দিন, রামগড় উপজেলা প্রেসক্লাব’র সভাপতি নিজাম উদ্দিন, খাগড়াছড়ি জেলা যুবলীগ নেতা মো. হাফিজ উদ্দিন, খাগড়াছড়ি চাকমা একাডেমী’র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক রুপায়ন তালুকদার, খাগড়াছড়ি জেলা ক্রীড়া সংস্থা’র নির্বাহী সদস্য সুমন মল্লিক এবং দীঘিনালা কুজেন্দ্র-মল্লিকা মডার্ণ কলেজ-এর প্রভাষক রাসেল ত্রিপুরা উপস্থিত ছিলেন।